শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে বনে বেড়াতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার হয়েছে নবম শ্রেণি পড়ুয়া তিন ছাত্রী।

ঘটনার শিকার এক শিক্ষার্থীর বাবা সোমবার ঘাটাইল থানায় অজ্ঞাত পরিচয় ৫-১০ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। তবে পুলিশ এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি।

মামলা ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রবিবার টাঙ্গাইলের ঘাটাইল এলাকার একটি বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠান ছিল। 
অনুষ্ঠানের পরে চার শিক্ষার্থী বেড়াতে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। দুপুর দেড়টায় তারা ঝড়কা এলাকায় যায়। সেখানে, হৃদয় এবং শাহীন নামে দুই বন্ধু যোগদান করে।
পরে তারা সাতকুয়া এলাকায় সেনাবাহিনীর ফায়ারিং রেঞ্জের উত্তর-পশ্চিমে আশিক নামের একটি ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার ড্রাইভারকে নিয়ে অটোতে করে যায়। 
এ সময় ৫-৭ জন তাদের ঘিরে ফেলে এবং হৃদয়, শাহীন ও আশিককে মারধর করে। সেই সাথে তিনজনকে গণধর্ষন করে।
ধর্ষকদের একজনের ‘ভাগ্নি’র মতো চেহারা বলে অন্য ছাত্রীকে ধর্ষণ করা থেকে বিরত থাকে।
তাদের দুপুর ২ টা থেকে ৭ টা পর্যন্ত পালাক্রমে ধর্ষণ করে। এরপর তারা পালিয়ে যায়। পরে তারা চার শিক্ষার্থীর একজনের নানীর কাছে আশ্রয় নিয়েছিল।
সেখান থেকে অভিভাবকদের মোবাইলে ফোন করে বিষয়টি জানানো হয়। পরে অভিভাবকরা পুলিশকে খবর দিয়ে তাদের উদ্ধার করেন।

টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তানভীর আহমেদ বলেন, তিনজনকে গণধর্ষণের অভিযোগের পর তাদেরকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

তাদের শারীরিক অবস্থা কিছুটা ভাল হলেও মানসিকভাবে বিপর্যস্ত। মেডিক্যাল টিম গঠন করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।

ঘাটাইল থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) মো. সাইফুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘থানায় মামলা হয়েছে। আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।’

 
 
 
Facebook Comments
%d bloggers like this: