শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

হিজরারা প্রায়ই সমস্যার সৃস্টি করে থাকে। যা জনজীবনে অনেকের ভোগান্তির স্বীকার করে তোলে। হিজরাদের বিরুদ্ধে তাই অনেকের অভিযোগের কোনো শেষ নেই। কারো বাড়িতে নবজাতকের

খবর পেলে তারা সবচেয়ে বেশি সমস্যা তৈরি করে। সে বাড়িতে গিয়ে শুরু হয় বড় অংকের চাঁদাবাজি। ৫-১০ হাজার টাকার ডিমান্ড করে বসে। যা অনেক পরিবারের পক্ষে দেওয়া সম্বভ না।

টাকা না দিলে বাচ্চা কেড়ে নেওয়ার হূমকি দেয়। বাচ্চাকে নিয়ে নাচানাচি করে।  ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের ঝাড়গ্রামে, বাবা মায়ের আপত্তিকে উড়িয়ে দিয়ে অসুস্থ শিশুকে নিয়ে জোর করে নাচানোর ফলে শ্বাসকস্টে মৃত্যুবরন করে দেড় মাসের বাচ্চা। এই ঘটনায় তিনজন হিজড়াকে গ্রেপ্তার করেছে ভারতের পুলিশ।

ঝাড়গ্রামের শিলদায় নবজাতকের খবর পেয়ে শুক্রবারে চন্দন খিলারের বাড়িতে দলবল নিয়ে আসেন হিজড়ারা। নবজাতকের জন্য ১৫ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন। কিন্তু চন্দন খিলার রাজি না হওয়ায় তার

উপর চড়াও হয় হিজড়ারা।  বাবা মায়ের আপত্তিকে উড়িয়ে দিয়ে সুমন খিলার নামের ছোট্ট শিশুটিকে নিয়ে তারা উদ্দ্যাম নৃত্যে মেতে উঠেন। এরপর অসুস্থ হয়ে যায় শিশুটি। এরপর শিশূটিকে নিয়ে শিলদা প্রাথমিক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

সেখান থেকে পরবর্তীতে পাঠানো হয় ঝাড়গ্রাম সুপার স্পেশালিস্ট হাসপাতালে। সেখানে শিশুটিকে মৃত ঘোষনা করা হয়।

জানা গেছে, সুমন নামে ওই শিশুটির হার্টের সমস্যা ছিল। শুক্রবার দুপুরে মর্মান্তিক ঘটনায় শোকের ছায়া নেমে যায় গোটা গ্রামে। ঘটনার পরই থানায় অভিযোগ দায়ের করে শিশুটির পরিবার।

ইতোমধ্যেই ৩ হিজড়াকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.

%d bloggers like this: